ঢাকা - ফেব্রুয়ারি ০২, ২০২৩ : ২০ মাঘ, ১৪২৯

নানার বাড়ির ঠিকানা দিয়ে সরকারি চাকরি পেলেন ধর্মপাশার হৃদি

বাংলাদেশ২৪অনলাইন
ডিসেম্বর ০৫, ২০২২ ১৮:৩৫
৫৯ বার পঠিত

ধর্মপাশা (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি:

সুনামগেঞ্জর ধর্মপাশায় বসবাস না করলেও আবেদনপত্রে স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে নানার বাড়ির ঠিকানা দিয়ে পরিবার কল্যাণ সহকারী পদে চাকরি পেয়েছেন হৃদি রায় নামে। সোমবার বিকালে ধর্মপাশা কলেজ রোডস্থ একটি বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলেন করে এমন অভিযোগ তুলেছেন একই পদে নিয়োগ না পাওয়া শামীমা আক্তার ও স্বর্না দেবী নামের দুই প্রার্থী। তারা এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, পরিবার কল্যাণ সহকারী পদে নিয়োগের জন্য মধ্যনগর ইউনিয়নের ৩/খ ইউনিটের শুধুমাত্র গলহা, বনগাঁও, কলুমা, করুয়াজান ও

মাছুয়াকান্দা গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দাদের কাছে থেকে দরখাস্ত আহবান করা হয়। কিন্তু নিয়োগপ্রাপ্ত হৃদি রায় মধ্যনগর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের ইটাউড়ি গ্রামের বাসিন্দা তাপস রায়ের মেয়ে হলেও গলহা গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে চাকরি পেয়েছেন।

হৃদি রায় বলেন, ‘আমি স্থায়ীভাবে ইটাউড়ি গ্রামে বসবাস করি। গলহা গ্রামে আমার নানার জায়গা রয়েছে। উত্তরাধীকারী হিসেবে আমরা সেই জায়গা পাই। সেই সূত্রে আবেদন করেছি।’ মধ্যনগর ইউপির ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুস ছাত্তার বলেন, ‘তাপস রায়ের মেয়ে হৃদি রায় গলহা গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা না।’জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের উপপরিচালক বিকাশ কুমার দাস বলেন, ‘পুলিশ ভ্যারিফিকেশনের মাধ্যমে নিশ্চিত হয়ে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে অভিযোগ পাওয়া গেলে বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

সাদ্দাম হোসেন/এমকে



মন্তব্য