ঢাকা - ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০২৩ : ২০ মাঘ, ১৪২৯

মধ্যনগরে ৪ একর জমিতে চাষাবাদ নিয়ে বেকায়দায় দুই কৃষক

বাংলাদেশ২৪অনলাইন
ডিসেম্বর ০৪, ২০২২ ১৮:০৬
১১০ বার পঠিত

ধর্মপাশা (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের মধ্যনগর উপজেলায় দুই কৃষক সরকারের কাছে থেকে বন্দোবস্ত নেওয়া ৪ একর জমিতে চাষাবাদ করতে পারছেন না। তাদের অভিযোগ, স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক গোলাম মোস্তাফা ওই জমিতে চাষাবাদ করতে বাধা দিচ্ছেন। জেলা প্রশাসক ও মধ্যনগরের ইউএনওর কাছে লিখিতভাবে এ ঘটনার প্রতিকার চেয়েছেন ভুক্তভোগী আলিয়াহারপুর গ্রামের বাসিন্দা আজম খাঁ ও বলরামপুর গ্রামের বাসিন্দা জসিম উদ্দিন।

জানা গেছে, মধ্যনগর উপজেলার শালদিঘা হাওরে ১১৭ নম্বর দাগে ১৭.৭৫ একর খাস ভূমি থেকে ১৯৯৯ সালে ২ একর করে কৃষি জমি পরবর্তী ৯৯ বছরের জন্য বন্দোবস্ত পান আজম খাঁ ও জসিম উদ্দিন । কিন্তু আলিয়াহারপুর গ্রামের বাসিন্দা গোলাম মোফস্তা গং দীর্ঘ বছর ধরে ভুক্তভোগীদের জমিতে যেতে বাধা দিচ্ছে আসছে। গত বৃহস্পতিবার আজম খাঁ তার জমিতে কাজ করতে গেলে গোলাম মোস্তফা গং হেনস্থা করেন বলে অভিযোগ আজম খাঁর।

আজম খাঁ ও জসিম উদ্দিন বলেন, গোলাম মোস্তফা জোরপূর্বক আমাদের জমি দখলের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। ফলে আমরা আমাদের জমিতে চাষাবাদ করতে পারছি না। তিনি কৌশলে অসহায় ব্যক্তিদের নাম ব্যবহার করে জমি বন্দোবস্ত নিয়ে

ভোগ দখল করেন। গোলাম মোস্তফা বলেন, আমি ওই দাগ থেকে রেখা আক্তার নামে একজনের কাছ থেকে জমি কিনে রেখেছি। এটার নিয়ম আছে। এই দাগ ও এর বাইরে অন্য জমিতে আমার যদি অধিকার না থাকে, তাহলে জমি ছেড়ে দিবো।

মধ্যনগরের ইউএনও নাহিদ হাসান খান বলেন, খাস জমি উত্তরাধীকার সূত্রে ভোগ করতে পারবে। কিন্তু বিক্রি বা হস্তান্তরের সুযোগ নেই। এমনটি হয়ে থাকলে উপযুক্ত প্রমাণ সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সাদ্দাম হোসেন/এমকে



মন্তব্য