ঢাকা - জুন ০২, ২০২০ : ১৯ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭

বজ্রপাতে ৪ মাসে ৭৯ জনের মৃত্যু

নিউজ ডেস্ক
মে ০৮, ২০২০ ০৯:২০
৫৭ বার পঠিত

জানুয়ারি থেকে এপ্রিল, ৪ মাসে সারা দেশে বজ্রপাতে ৭৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময় ব্রজাঘাতে আহত হয়েছেন ২১ জন। চার মাসের মধ্যে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে এপ্রিল মাসে, ৭০ জন। কৃষি কাজ করার সময় এবং সিলেট বিভাগে সবচেয়ে বেশি ঘটেছে এ ঘটনা।

বৃহস্পতিবার অনলাইনে ফেসবুক পেজের মাধ্যমে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সব তথ্য জানায় সেইভ দ্য সোসাইটি অ্যান্ড থান্ডারস্টর্ম অ্যাওয়ারনেস ফোরাম। সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক মো. রাশিম মোল্লা এবং গবেষণা সেলের নির্বাহী প্রধান আব্দুল আলীম এসব তথ্য উপস্থাপন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বেশ কয়েকটি জাতীয় দৈনিক, আঞ্চলিক দৈনিক পত্রিকা, অনলাইন নিউজ পোর্টালসহ টেলিভিশনের স্ক্রল থেকে তথ্যগুলো সংগ্রহ করে বজ্রপাতের এ পরিসংখ্যান বের করা হয়েছে। বজ্রপাতে মারা যাওয়া ৭৯ জনের মধ্যে ১০ জন নারী, ৩ জন শিশু এবং আর বাকি ৬৮ জনই পুরুষ। নারী ও পুরুষের মধ্যে আবার ৩ জন শিশু এবং ৯ জন কিশোর রয়েছে। আহত ২১ জনের মধ্যে ১৫ জন পুরুষ এবং ৬ জন নারী রয়েছে। নারী ও পুরুষের মধ্যে ২ জন কিশোর রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, সাধারণত জানুয়ারি মাসে প্রচণ্ড শীত থাকায় এ মাসে বজ্রপাত হয় না। তবে এবার কনকনে শীতের মধ্যেও জানুয়ারি মাসে বজ্রপাতে ৩ জন মারা গেছে। তারা সবাই পুরুষ। ফেব্রুয়ারি মাসে কোনও হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও মার্চ মাসে ছয় জনের মৃত্যু হয়েছে। এপ্রিল মাসে মারা যাওয় ৭০ জনের মধ্যে নারী আট জন এবং ৬২ জনই পুরুষ। এছাড়া এপ্রিল মাসে বজ্রাঘাতে মোট ১৫ জন আহত হয়েছেন। তার মধ্যে ১৩ জন পুরুষ এবং দুই জন নারী।

সবচেয়ে বেশি ৪০ জন মারা গেছে কৃষি কাজ করার সময়। এছাড়া নৌকায় বসে মাছ ধরার সময় দুই জন, মাঠ থেকে গরু আনার সময় ১২ জন, আম কুড়ানোর সময় এক জন, ঘরে অবস্থানকালীন চার জন, পাথর উত্তোলনের সময় দুই জন, মাঠে খেলা করার সময় এক জন, বাড়ির আঙিনায় খেলা করার সময় দুই জন, ফাঁকা রাস্তায় চলার সময় চার জন, রিকশা চালানোর সময় এক জন, গাড়িতে থাকাকালীন দুই জন মারা যায়। অন্যদিকে চিকিৎসা নিয়ে ফেরার সময়, নির্মাণ কাজ করার সময় ও হাওরে অবস্থানকালেসহ বিভিন্ন সময় ছয় জনের মৃত্যু হয়।

এমআই



মন্তব্য