ঢাকা - নভেম্বর ২০, ২০১৯ : ৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬

নজরদারির সফটওয়্যার  স্টকারওয়্যার

নিউজ ডেস্ক
অক্টোবর ২৮, ২০১৯ ১৭:৫৩
৫০ বার পঠিত

'স্টকারওয়্যার' যা কিনা 'স্পাউসওয়্যার' নামেও পরিচিত - এক ধরনের খুবই শক্তিশালী নজরদারির সফটওয়্যার প্রোগ্রাম যা সাধারণত প্রকাশ্য অনলাইনে কিনতে পাওয়া যায়। যেটি অধিকাংশ ক্ষেত্রে ব্যবহার হয়ে থাকে সঙ্গী বা সঙ্গিনীর ক্ষেত্রে।

এটি ব্যবহার করে নির্দিষ্ট কোনও ব্যক্তির সমস্ত মেসেজ পড়া সম্ভব, তার ব্যবহৃত কম্পিউটারের স্ক্রিনের রেকর্ড রাখা যায়, জিপিএস অবস্থান ট্র্যাক করা যায়, ব্যক্তি কী করছে তা জানার জন্যে ক্যামেরা পর্যন্ত ব্যবহার করা সম্ভব।

সাইবার নিরাপত্তা সংস্থা ক্যাসপারস্কির মতে, এ ধরনের গুপ্তচরমূলক সফটওয়্যার নিজেদের ডিভাইসে খুঁজে পাওয়া ব্যবহারকারীর সংখ্যা গত একবছরে কমপক্ষে বেড়েছে ৩৫%। তাদের সুরক্ষা প্রযুক্তি এ বছর এখন পর্যন্ত ৩৭,৫৩২টি ডিভাইসে 'স্টকওয়্যার' সনাক্ত করতে পেরেছে।

সংস্থাটির প্রধান সুরক্ষা গবেষক ডেভিড এম সংখ্যাটিকে একটি বিশাল 'হিমবাহের চুড়া মাত্র' বলে উল্লেখ করেছেন। তিনি বলছেন, "বেশিরভাগ মানুষ নিয়মিত তাদের ল্যাপটপ বা ডেক্সটপের সুরক্ষা নিশ্চিত করে। কিন্তু তাদের মোবাইল ফোনের ক্ষেত্রে নয়।"

তার হিসেবে স্মার্টফোনে ক্যাসপারস্কি সুরক্ষা ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে তথ্য নিয়েই ওপরের সংখ্যাটি তারা পেয়েছেন। সুতরাং প্রকৃত সংখ্যা আরও বেশি হবার সম্ভাবনা রয়েছে। ক্যাসপারস্কি'র অনুসন্ধানে রাশিয়াতে সবচেয়ে বেশি 'স্টকওয়্যার' ব্যবহারের প্রমাণ মিলেছে। ভারত, ব্রাজিল, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আর জার্মানি হল এর পরের ৫টি দেশ। যুক্তরাজ্যের অবস্থান তালিকায় ৮ম।

অন্য একটি সুরক্ষা প্রতিষ্ঠান বলছে যে তারা ব্যবহারিক পদক্ষেপ নিতে পারছে সেইসব ব্যক্তির ক্ষেত্রে, যারা মনে করছেন যে তাদের ওপর নজরদারি বা গুপ্তচরবৃত্তি করা হচ্ছে। 'ইস্ট' এর জ্যাক মুর-এর বক্তব্য, যে অ্যাপটি ব্যবহার করা হয় না সেটি ডিলিট করে দেয়াই সবচেয়ে সহজ উপায় এমন পরিস্থিতি এড়ানোর জন্যে।

বিবিসি



মন্তব্য