ঢাকা - নভেম্বর ১৫, ২০১৯ : ১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬

মোটা হওয়া নিয়ে ভুল ধারণা

নিউজ ডেস্ক
অক্টোবর ১৩, ২০১৯ ২৩:০১
৩২ বার পঠিত

মোটা হওয়া নিয়ে ভুল ধারণা হচ্ছে-অতিরিক্ত ওজন সবসময়ের জন্য অস্বাস্থ্যকর। সব ক্যালোরি একই রকম। স্থূলতা একটি রোগ, পছন্দের ব্যাপার নয়। শুধুমাত্র ধনী দেশগুলোয় স্থূলতার সমস্যা আছে। ইচ্ছাশক্তির সঙ্গে স্থূলতার কোন সম্পর্ক নেই। বুকের দুধের সঙ্গে স্থূলতার কোন সম্পর্ক নেই। ওজন কমানো নিয়ে হতাশা এড়াতে হলে আমাদের অবশ্যই বাস্তববাদী হতে হবে।

স্থূলতার পেছনের বড় কারণটি হলো জীবনযাপনের ধারা। শারীরিক এবং মানসিক কিছু বিষয় পরিবেশ ও সামাজিক প্রভাবের সঙ্গে একত্রিত হয়ে মানুষের অতিরিক্ত ওজন বা স্থূলতা কারণ তৈরি হয়। উচ্চকাঙ্খী লক্ষ্যমাত্রা এর ওজন কমানোর ক্ষেত্রে নেতিবাচক কোন সম্পর্ক নেই। বুকের দুধ খাওয়ার কারণে শিশুর স্থূল হওয়ার ঝুঁকি অনেকটা কমে যেতে পারে।

স্থূলতার সঙ্গে বংশগত সম্পর্ক রয়েছে। যাদের পরিবারের পূর্বে স্থূলতার ইতিহাস রয়েছে, তাদের বংশধরদের মধ্যে এটির বিস্তারের ঝুঁকিও বেশি। কম ক্যালোরিযুক্ত খাবার খাওয়ার কৌশল সবচেয়ে ভালো কাজ দেবে তখনি যখন, বিশেষ কিছু খাবার এবং পানীয় কম (বা বেশি) পরিমাণে খাওয়া হবে। সামাজিক বৈষম্যের কারণে তৈরি হওয়া অন্যতম একটি জিনিস হলো স্থূলতা। সচ্ছল এলাকাগুলোর তুলনায় সবচেয়ে অসচ্ছল এলাকা গুলোয় বসবাসকারী শিশুদের মধ্যে স্থূলতার হার প্রায় দ্বিগুণ হবার প্রধান কারণ হলো, স্বাস্থ্যকর খাবারের দাম অনেক বেশি।

কিছু মানুষের স্থূলতা থাকলেও সত্ত্বেও হজমের দিক থেকে স্বাস্থ্যবান এবং সুস্থ রয়েছেন, সাধারণ মানুষের তুলনায় হৃদরোগ বা ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার কোন ঝুঁকিতে নেই। তারা উচ্চ কোলেস্টেরল, রক্তচাপে ভোগেন না এবং অন্য স্থূল মানুষদের চেয়ে অনেক বেশি শারীরিকভাবে সুস্থ থাকেন। সব স্থূল মানুষের একই ধরণের সমস্যা থাকে না।

বিবিসি



মন্তব্য