ঢাকা - অক্টোবর ১৭, ২০১৯ : ২ কার্তিক, ১৪২৬

সাঁতারুকে ধর্ষণে কোচ গ্রেফতার

নিউজ ডেস্ক
সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৯ ২৩:০৬
৫৩৫ বার পঠিত

স্বর্ণজয়ী কিশোরী সাঁতারুকে যৌন হেনস্তা ও ধর্ষণের অভিযোগে অবশেষে গ্রেফতার হলেন কোচ সুরজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। শুক্রবার সন্ধ্যায় ভারতের দিল্লির কাশ্মীরি গেট থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গত ৪ আগস্ট ওই কিশোরীকে যৌন হেনস্তার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। কয়েক মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয় ভিডিওটি। ভারতের প্রতিভাবান এই সাঁতারুর সঙ্গে হওয়া অশ্লীল আচরণ নজরে আসে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজুর। তারপরই কোচের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করার নির্দেশ দেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার সুরজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে যাবতীয় চুক্তি বাতিল করে গোয়া সুইমিং অ্যাসোসিয়েশন। এমনকি, সুরজিৎ যেন ভবিষ্যতে কোথাও চাকরি না পান, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সেই নির্দেশও দেন সুইমিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়াকে।

বৃহস্পতিবার সকালে সুরজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে রিষড়া থানায় তথ্যপ্রমাণসহ অভিযোগ দায়ের করেন কিশোরীর মা-বাবা।

অভিযুক্ত কোচের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ (ধর্ষণ), ৩৫৪ (যৌন হেনস্তা) এবং ৫০৬ (সমাজবিরোধী কার্যকলাপ) নম্বর ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। পাশাপাশি পকসো আইনেও মামলাও করা হয়।

দেশটির পুলিশ বলেছে, বিভিন্ন শহরে পালিয়ে গ্রেফতারি এড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছিলেন সুরজিৎ। তার দুটো ফোনই সুইচড অফ ছিল।তাকে খুঁজে বের করার জন্য তৈরি হয় একটি বিশেষ দল। যেখানে ছিলেন উত্তর গোয়ার পুলিশ সুপার উৎকৃষ্ট প্রসূন, মাপুসার এসডিপিও গজানন্দ প্রভুদেশাই এবং ইনস্পেক্টর কপিল নায়েক। ভোপাল, বেঙ্গালুরুর মতো বেশ কয়েকটি শহরে তল্লাশি চালায় বিশেষ দলটি। ভারতের প্রত্যেক শহরের পুলিশকেও এবিষয়ে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছিল। অবশেষে তাকে খুজে পাওয়া যায় দিল্লির কাশ্মীরি গেট। সেখানেই দিল্লি পুলিশের জালে ধরা পড়েন তিনি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে নিজেদের হেফাজতে চাইবে গোয়া পুলিশ।



মন্তব্য