ঢাকা - নভেম্বর ২০, ২০১৯ : ৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬

সড়ক নিরাপত্তায় টাস্কফোর্সের নেতৃত্বে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক
সেপ্টেম্বর ০৬, ২০১৯ ০৭:৫২
৭৪ বার পঠিত

সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের ১১১ দফা সুপারিশ বাস্তবায়নে একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে। এর নেতৃত্ব দেবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এর সদস্য সচিবের দায়িত্বে থাকবেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব নজরুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের ২৭তম সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ওবায়দুল কাদের।

পুলিশের আইজি, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোর সচিব, ডিএমপি কমিশনার, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী, সড়ক ও জনপথ বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী, বিআরটিএ ও বিআরটিসির চেয়ারম্যান, ডিটিসিএর নির্বাহী পরিচালক এবং পরিবহন মালিক সমিতি, পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন, ট্রাক কাভার্ডভ্যান মালিক সমিতি, প্রাইম মুভারস অ্যাসোসিয়েশন ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রতিনিধি এবং হাইওয়ে পুলিশের ডিআইজি টাস্কফোর্সের সদস্য হবেন। গণপরিবহন বিশেষজ্ঞ বুয়েটের পুরকৌশল বিভাগের অধ্যাপক শামসুল হক, কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ, নিরাপদ সড়ক চাই-এর চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন ও ব্র্যাকের প্রতিনিধিকেও সদস্য রাখা হয়েছে।

সভা শেষে ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের টাস্কফোর্সের বিষয়ে অবহিত করেন। এ সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, সড়ক পরিবহন ও সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনার ভিত্তিতে আগামী সপ্তাহের মধ্যে টাস্কফোর্স কার্যক্রম শুরু করবে।

সভায় আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের সুপারিশ বাস্তবায়ন করতে হলে রাজউক ও বিআরটিএকে সমন্বিতভাবে অভিযান চালাতে হবে। পার্কিংয়ের জায়গা ছাড়া কোনো স্থাপনার অনুমোদন দেওয়া যাবে না।

সভায় সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি একাব্বর হোসেন, জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের সভাপতি সাবেক নৌমন্ত্রী শাজাহান খান, রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন, সড়ক পরিবহন সমিতির সভাপতি মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ, সৈয়দ আবুল মকসুদ, বিআরটিএ চেয়ারম্যান মশিউর রহমান ও ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়াসহ জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের ২৬তম সভায় সড়ক পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা ফেরাতে শাজাহান খানকে প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করা হয়। সম্প্রতি ওই কমিটি ১১১ দফা সুপরিশসহ একটি প্রতিবেদন জমা দেয়।



মন্তব্য