ঢাকা - অক্টোবর ২২, ২০১৯ : ৬ কার্তিক, ১৪২৬

ট্রাম্পের শতাব্দীর সেরা চুক্তি আরব লিগের প্রত্যাখ্যান

নিউজ ডেস্ক
এপ্রিল ২৩, ২০১৯ ১৮:২৭
১৮০ বার পঠিত

আরব লিগের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি তাদের সমর্থন ঘোষণা করেছেন। মিসরের রাজধানী কায়রোয় রোববার আরব লিগের এক জরুরি বৈঠক থেকে মার্কিন সরকারের তথাকথিত শতাব্দীর সেরা চুক্তি প্রত্যাখ্যান করেন তারা।

আরব লিগের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক থেকে প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, যত দিন ফিলিস্তিনি জনগণের স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের সুযোগ ও স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠিত না হবে তত দিন যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে উত্থাপিত ‘শতাব্দীর সেরা চুক্তি’ বা ‘সেঞ্চুরি ডিল’ মধ্যপ্রাচ্যে স্থায়ী ও টেকসই শান্তিপ্রতিষ্ঠা করতে পারবে না। বিবৃতিতে বায়তুল মুকাদ্দাসকে (জেরুসালেম) রাজধানী করে ১৯৬৭ সালের সীমান্ত নিয়ে একটি স্বাধীন-সার্বভৌম ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠনের প্রতি আরব লিগের সমর্থনের কথা পুনর্ব্যক্ত করা হয়েছে। সেই সাথে সব ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুদেরকে তাদের মাতৃভূমিতে ফিরে যাওয়ার সুযোগ করে দেয়ার এবং ইসরাইলি কারাগারে আটক সব ফিলিস্তিনি বন্দীর মুক্তি দাবি জানানো হয়েছে।

আরব লিগের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা ফিলিস্তিন সরকারের কাছে নিরাপদে অর্থ সরবরাহ করার প্রয়োজনীয়তার ওপরও গুরুত্বারোপ করেন। সম্মেলনে ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস বলেন, ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু শান্তিতে বিশ্বাসী নন। তিনি বলেন, অসলো চুক্তি ও প্যারিস ইকোনমিক প্রটোকলসহ সব আন্তর্জাতিক প্রস্তাব লঙ্ঘন করছে ইসরাইল। তিনি আরো বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুসালেমকে ইসরাইলের রাজধানী স্বীকৃতি দিয়ে ও জেরুসালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তর করে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছেন।

উল্লেখ্য, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মধ্যপ্রাচ্যে কথিত শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ‘শতাব্দীর সেরা চুক্তি’ নামের একটি পরিকল্পনা তৈরি করেছেন। ওই পরিকল্পনায় মুসলমানদের প্রথম কিবলা নগরী বায়তুল মুকাদ্দাসকে ইসরাইলের কাছে হস্তান্তরের কথা বলা হয়েছে। সেই সাথে ওই পরিকল্পনায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাসরত ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুদের স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের অধিকার কেড়ে নেয়ার পাশাপাশি বলা হয়েছে, জর্দান নদীর পশ্চিম তীর ও গাজা উপত্যকার যতটুকু এলাকা বর্তমানে ফিলিস্তিনিদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে ততটুতু স্থান নিয়ে ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হবে।

আনাদোলু ও মিডলইস্ট মনিটর



মন্তব্য