ঢাকা - নভেম্বর ২২, ২০১৯ : ৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬

চাঁদে আমেরিকার গোপন ঘাঁটি!

নিউজ ডেস্ক
এপ্রিল ২১, ২০১৯ ১১:৪২
৫৭২ বার পঠিত

চাঁদে হয়তো অদ্ভুত কিছু ঘটছে, কিন্তু আমাদের তা জানা নেই। অন্তত উইকিলিকসের ফাঁস করা কিছু সরকারি নথি দেখে সেই ভাবনায় আরও জোর পাবে।

নথির শিরোনাম, ‘রিপোর্ট দ্যাট ইউআর ডেস্ট্রয়েড সিক্রেট মুন বেইস (প্রতিবেদন, চাঁদের গোপন ঘাঁটি ধ্বংস করেছে সোভিয়েত ইউনিয়ন)’। নথিটি ইলেকট্রনিক নয় বলে পুরো লেখা পাওয়া যায়নি। বিকল্প সংবাদমাধ্যম কালেক্টিভ ইভল্যুশানে প্রকাশিত এ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শিরোনামেই মহাকাশ যুদ্ধের বাস্তবতার বিষয়টি পরিষ্কার।

একই সঙ্গে নথিটি ‘চাঁদে গোপন ঘাঁটি’র সম্ভাব্যতাও তুলে ধরে। যেটি যুক্তরাষ্ট্রের; ইউআর (সোভিয়েত ইউনিয়ন) ধ্বংস করার আগ পর্যন্ত ঘাঁটিটি সক্রিয় ছিল। শুধু এটিই নয়, উইকিলিকসের ফাঁস করা আরও কিছু নথি আছে এ বিষয়ে। সেসব থেকে পরিষ্কার যে, চাঁদে ঘাঁটি স্থাপনের বিষয়টি নিয়ে দীর্ঘদিন বিভিন্ন দেশের সরকারের মধ্যে আলোচনা চলেছে। এর সবচেয়ে বড় উদাহরণ মার্কিন সরকারের প্রকাশনা দপ্তরের একটি নথি, যাতে স্পষ্ট করে বলা হয়েছে, মার্কিন সরকারের অন্যতম লক্ষ্য হলো চাঁদে ঘাঁটি নির্মাণ করা।

নথিটির একটি অংশে প্রেসিডেন্ট কেনেডি ও জনসনের কথা উল্লেখ করে বক্তব্য লিখেছেন জর্জ পি মিলার, ‘আমি এও বিশ্বাস করি যে, প্রেসিডেন্ট কেনেডি ও জনসন ১৯৭০ সালের মধ্যে চাঁদে মানুষ পাঠানোর যে লক্ষ্য নির্ধারণ করেছেন তা আমরা অর্জন করতে পারব। আমাদের এগিয়ে চলা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ওপর আমার নিজের আত্মবিশ্বাস এমন যে, আমি সামনে আরও নাটকীয় অর্জন দেখতে পাই। যদিও এগুলোর জন্য সময়সীমা দেব না: ১. চাঁদের পৃষ্ঠে অনুসন্ধান চালানো, এবং ২. সেখানে এক বা একাধিক সম্ভাব্য স্থায়ী ঘাঁটি তৈরি করা।’

এর বাইরেও মার্কিন সরকারের প্রকাশ করা নথিতে এ বিষয়ে আলোচনা দেখা যায়। মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএর একটি নথিতে দেখা যায়, সেখানে মহাকাশকে অস্ত্রসমৃদ্ধ করার কথা বলা হয়েছে। ‘সামরিক ভাবনা (অতি গোপনীয়)’ শিরোনামে নথিটি আসলে একটি স্মারক চিঠি। লেফটেন্যান্ট জেনারেল কোরোনেভস্কি সেটি সিআইএ পরিচালকের কাছে পাঠিয়েছিলেন।



মন্তব্য