ঢাকা - মে ২০, ২০১৯ : ৬ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬

বিশ্বজুড়ে বোয়িং ম্যাক্স-৮ উড্ডয়ন নিষিদ্ধ ঘোষণা

নিউজ ডেস্ক
মার্চ ১৫, ২০১৯ ০৯:৩৫
১২৪ বার পঠিত

অবশেষে বিশ্বজুড়ে বোয়িং সেভেন থ্রি সেভেন ম্যাক্স এইট মডেলের বিমানের উড্ডয়ন নিষিদ্ধের ঘোষণা দিয়েছে খোদ বিমান নির্মাতাপ্রতিষ্ঠানটি। ইথিওপিয়ায় বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার পর থেকে যাত্রীদের ভীতি ছড়িয়ে পড়ার কারণে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে বোয়িং।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স-৮ বিমানের চলাচল বাতিল করলেও যুক্তরাষ্ট্র শুরু থেকেই বলে আসছিল যে, বোয়িংয়ের এই মডেল নিরাপদ নয় এমন সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় এখনো আসেনি। কিন্তু এবার নিরাপত্তার হুমকি ছাড়াও এ বিষয়ে বিতর্ক এবং সর্বশেষ তদন্ত থেকে পাওয়া তথ্যের ওপর ভিত্তি করে বিশ্বব্যাপী এই মডেলের সব বিমানের ওঠানামা বন্ধ করেছে বোয়িং।

বিশ্বজুড়ে সর্বশেষ দেশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রও তাদের দেশে বোয়িংয়ের ওই মডেলের ওঠানামা বাতিল করেছে। ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের বিমানটি যেখানে বিধ্বস্ত হয়েছিল সেখান থেকে তদন্তকারীরা নতুন কিছু প্রমাণ উদ্ঘাটন করার পর বুধবার এই মডেলের সব বিমানের ওঠানামা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত জানায় বোয়িং।

বোয়িংয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই ঘোষণা অনুযায়ী, বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন বিমান সংস্থার ব্যবহৃত ওই মডেলের ৩৭১টি বিমানের কোনোটিই আর আকাশে উড়বে না। এ ঘোষণা দেয়ার পর যদি কোনো বিমান আকাশে উড্ডয়নরত অবস্থায় থাকে, তবে অবতরণের পর থেকেই এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে বলে জানিয়েছে বোয়িং। এর আগে বোয়িং ম্যাক্স এইটের বিষয়ে সতর্কতা জারি করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, মার্কিন জনগণের নিরাপত্তার স্বার্থেই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এরপর ১৬টিরও বেশি দেশ থেকে নিষেধাজ্ঞার সম্মুখীন হয় এই বিমান নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানটি। এক বিবৃতিতে বোয়িংয়ের সভাপতি, নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ও চেয়ারম্যান ড্যানিস মুইলেনবার্গ বলেন, ‘আমরা এই সতর্কতামূলক কর্মকাণ্ডকে সাধুবাদ জানাই।’ মুইলেনবার্গ আরো বলেন, ‘বিমান দুর্ঘটনার প্রকৃত কারণ অনুসন্ধানে তদন্তকারীদের সাথে যোগ দিয়ে আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি। নিরাপত্তা বাড়ানোর জন্য আমরা চেষ্টা করব এবং এ ধরনের ঘটনা যেন আর না ঘটে তা নিশ্চিত করব।’

ছয় মাসের ব্যবধানে ইন্দোনেশিয়া ও ইথিওপিয়ায় বোয়িংয়ের ওই মডেলের বিমান দুর্ঘটনায় সব আরোহী নিহত হন। গত রোববার ইথিওপিয়ার রাজধানী আদ্দিস আবাবা থেকে কেনিয়ার নাইরোবিতে যাওয়ার পথে ১৫৭ জন আরোহী নিয়ে বোয়িং ৭৩৭-৮ ম্যাক্স উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় সেখানে থাকা সবাই নিহত হন। আর এর পর থেকেই বিশ্বজুড়ে সমালোচনার মুখে পড়ে বোয়িং।

আলজাজিরা



মন্তব্য