ঢাকা - নভেম্বর ২০, ২০১৮ : ৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫

পিরামিডের নির্মাণ রহস্য

নিউজ ডেস্ক
নভেম্বর ০৮, ২০১৮ ০৮:৪৭
৮৮ বার পঠিত

পিরামিড হল মিসরে অবস্থিত প্রাচীন প্রস্তরনির্মিত স্থাপনা। প্রাচীন যুগের সপ্ত আশ্চর্যের মধ্যে আজও টিকে থাকা একমাত্র বিস্ময় মিসরের এই পিরামিড। প্রায় সাড়ে চার হাজার বছরেও পিরামিডের রহস্য পুরোপুরি উদ্ঘাটন করা যায়নি।

তবে প্রত্নতত্ত্ববিদরা এবার পিরামিড যে পাথরের ব্লক দ্বারা নির্মিত, সেগুলো কীভাবে ওপরে তোলা হয়েছে, তার একটি নকশা আবিষ্কার করেছেন। কায়রোর ফ্রেঞ্চ ইন্সটিটিউট ফর ওরিয়েন্টাল আর্কিওলজি ও যুক্তরাজ্যের লিভারপুল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা এ তথ্য আবিষ্কার করেন। খবর ডেইলি মেইলের।

নতুন এক নকশায় দেখা যায়, প্রাচীন পিরামিড নির্মাণে মিসরীয়রা ব্লক উপরে তোলার জন্য র‌্যাম্প (ধাপবিহীন সিঁড়ি) ও কাঠের তক্তা ব্যবহার করেছেন। নকশায় দেখানো হয়, মিসরীয়রা পিরামিড নির্মাণের জন্য কীভাবে কয়েক টন ওজনের ব্লক স্লেজের মাধ্যমে কয়েকশ’ ফুট উপরে তুলতেন।

বিজ্ঞানিরা বলেন, একটি প্রাচীণ প্রত্নতত্ত্ব নিদর্শন থেকে ধারণা করা যায়, প্রাচীন মিসরীয়রা ব্লক উপরে তোলার জন্য একধরনের জটিল পদ্ধতি অনুসরণ করতেন। এক্ষেত্রে তারা একটি ধাপবিহীন সিঁড়ি (র‌্যাম্প) এবং এর দুই পাশে দুটি ধাপযুক্ত সিঁড়ি ব্যবহার করতেন। র‌্যাম্পের ভেতরপ্রান্তে উভয় পাশে দেড় ফুট পর পর কাঠের খুঁটি বসাতেন।

ব্লকের নিচে কাঠের তক্তা ব্যবহার করা হতো, যা চাকার কাজ করত। এরপর ব্লক রশি দিয়ে প্যাঁচিয়ে কাঠের খুঁটির সঙ্গে প্যাঁচ দিয়ে উপরে ও নিচ থেকে টানা হতো। র‌্যাম্পের দুই পাশে ধাপযুক্ত সিঁড়িতে চারজন করে আটজন এবং নিচেও চারজন করে আটজন কর্মী রশি ধরে টানতেন। যারা নিচে ছিলেন, তারা নিচের দিকে আর যারা উপরে ছিলেন, তারা ওপরের দিকে টানতেন।

এভাবে টেনে কাঠের খুঁটির উপরের ধাপে গেলে পেছনে কিছু দিয়ে ঠেকা দেয়া হতো। তারপর রশি আবার উপরের ধাপের খুঁটির সঙ্গে প্যাঁচিয়ে আবারও টেনে উপরে তোলা হতো। এভাবে ধীরে ধীরে উপরে তোলা হতো পিরামিডের ব্লকগুলো।



মন্তব্য