ঢাকা - অক্টোবর ২০, ২০১৮ : ৫ কার্তিক, ১৪২৫

শিশুদের অশুভ ও অসম প্রতিযোগিতার মুখে ঠেলে দেবেন না : রাষ্ট্রপতি

নিউজ ডেস্ক
মে ১৬, ২০১৮ ১৬:৪০
৬৯ বার পঠিত

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন- অভিভাবকদের প্রতি আমার আহ্বান, আপনারা শিশুর ব্যক্তিত্বের প্রতি আস্থা রেখে তাদের প্রতিভা বিকাশের সুযোগ করে দিন। শিশুদের অশুভ ও অসম প্রতিযোগিতার মুখে ঠেলে দেবেন না। সব কিছুতে প্রথম বানানোর জন্য শিশুদের জন্য এমন কিছু করবেন না যা নীতি-নৈতিকতাকে প্রশ্নবিদ্ধ করে বা তারা ভুল পথে পরিচালিত হতে পারে। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি শিশুকে সামাজিক ও ধর্মীয় মূল্যবোধ সম্পর্কে সচেতন করে তুলুন, যাতে বড় হয়ে তারা কুসংস্কার ও ধর্মান্ধতা থেকে মুক্ত থাকতে পারে।

রাষ্ট্রপতি বলেন- লেখাপড়া নিয়ে চরম প্রতিযোগিতায় শিশুদের চেয়ে তাদের মা-বাবা ও অভিভাবকদের আগ্রহই বেশি দেখা যায়। শিশুদের ধারণক্ষমতা চিন্তা না করে কে কয়জন টিউটরের কাছে পড়ছে বা কে কত বেশি নম্বর পেল সেটাকেই প্রাধান্য দেওয়া হয়। এতে শিশুদের স্বাভাবিক বেড়ে উঠা বাধাগ্রস্ত হয়। এজন্য পরিবার, সমাজ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সর্বত্র শিশুবান্ধব পরিবেশ তৈরি করতে হবে। তাই আসুন শিশুদের প্রতিভা বিকাশে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালাই। আমি অভিভাবক, সামর্থ্যবান ব্যক্তি এবং শিশু কল্যাণে নিবেদিত সকল সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে আরও বেশি শিশুবান্ধব কর্মসূচি নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

আবদুল হামিদ বলেন, আমাদের মনে রাখা দরকার, পরীক্ষায় প্রথম হওয়ার চেয়ে ভালো মানুষ হওয়ার গুরুত্ব অনেক বেশি। শিশুদের শেখাতে হবে আনন্দের মাধ্যমে। জোর করে বা চাপিয়ে দেওয়ার মাধ্যমে নয়। বদ্ধঘরের চার দেয়ালের বাইরে যে বিশাল জগত রয়েছে তা থেকে শিশুকে শেখাতে হবে। ছবির প্রজাপতির চেয়ে উড়ন্ত প্রজাপতির রং ও সৌন্দর্য যে অনেক সুন্দর তা শিশুকে জানাতে হবে। তা হলে সেই শিক্ষা শিশুর মনে স্থায়ী হবে। তারা আত্মপ্রত্যয়ী হতে পারবে।



মন্তব্য