ঢাকা - সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৮ : ৭ আশ্বিন, ১৪২৫

সেই ছবি এখন স্মৃতি

নিউজ ডেস্ক
মার্চ ১৩, ২০১৮ ০৮:৪৪
১৪৮ বার পঠিত

বাসা থেকে বিমানবন্দরে যাওয়ার পথে এক সেলফি, বিমানে উঠার আগে আরেকটি সেলফি দিয়ে বন্ধু ও স্বজনদের নেপালে বেড়াতে যাওয়ার কথা জানিয়েছিলেন হাসি ও রকিবুল দম্পত্তি। কিন্তু এখন সেই ছবিগুলো কেবলই স্মৃতি।

নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডু ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হওয়া ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের প্লেনের যাত্রী ছিলেন রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) শিক্ষিকা ইমরানা কবির হাসি। তার স্বামী রকিবুল ইসলাম রুয়েটের একই বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন। বর্তমানে ঢাকায় চাকুরি করেন। রকিবুল সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার বাঘুটিয়ার ইউনিয়নের বিনানই গ্রামের মৃত রবিউল করিমের ছেলে।

১৫ দিনের ছুটিতে তারা নেপালে বেড়াতে যাচ্ছিলেন। কিন্তু এর আগেই তাদের বিমান বিধ্বস্ত হয়। তাদের ভাগ্যে কি ঘটেছে এখনও জানতে পারেনি তাদের পরিবার। অনেক উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা নিয়ে অপেক্ষার প্রহর গুণছেন তারা।



মন্তব্য