ঢাকা - এপ্রিল ২৩, ২০১৮ : ৯ বৈশাখ, ১৪২৫

লাটিম খেলা হারিয়ে যাচ্ছে !

নিউজ ডেস্ক
অক্টোবর ২৭, ২০১৬ ১৬:৫০





গ্রাম-বাংলা থেকেও লাটিম খেলার চল প্রায় উঠে গেছে। তবে গ্রামাঞ্চলে এক সময় লাটিম খেলার প্রচলন ছিল বেশি। লাটিম সাধারণত কাঠমিস্ত্রিরা বানায়। এদের কাছ থেকে ছেলেরা এগুলো কিনে আনে। লাটিম ঘোরানোতে চিকন দড়ি বা ফিতা ব্যবহার করা হয়। একে কোন কোন অঞ্চলে লেতি বলে।

লাটিম খেলার শুরুতে সমতল ভূমিতে একটি বৃত্ত অাঁকা হয়। এই বৃত্ত অাঁকারও একটা নিয়ম আছে। প্রথমে একটি লাটিমের সঙ্গে লেপতির এক মাথা বাধা হয়। এরপর একজন লেপতির অপর মাথা মাটিতে এক স্থানে চেপে ধরে। আরেকজন খেলোয়াড় লেপতি টানটান করে লাটিমটি মাটিস্পর্শ করে ঘুরিয়ে আনলেই লাটিমের সোঁচালো আলে দাগ বসে যায়। এতেই বৃত্ত তৈরি হয়। এরপর শুরু হয় খেলা। একেকজন খেলোয়াড় লাটিম বৃত্তের মধ্যে ঘোরানো শুরু করে। এরপর যার লাটিমটি ঘুরতে ঘুরতে বৃত্ত থেকে বেরিয়ে সবচেয়ে বেশি দূরে যায় সে প্রথম, তারপর যারটি থাকে সে দ্বিতীয় হয়। এমনভাবে তৃতীয়, চতুর্থও নির্ধারণ হয়। এরপর চতুর্থ অবস্থানের খেলোয়াড় বৃত্তে লাটিম ঘুরিয়ে দেয়, তৃতীয় অবস্থানের জন তার লাটিম দিয়ে ঘোরানো লাটিমকে আঘাত করে বৃত্তের বাইরে আনতে পারলে লাটিমটি তার হয়ে যায়। এরপরে তৃতীয় অবস্থানের খেলোয়াড় তার লাটিম ঘুরালে, দ্বিতীয় অবস্থানের খেলোয়াড় একইভাবে ওই লাটিমকে তার লাটিম দিয়ে আঘাত করে বৃত্তের বাইরে নিতে পারলে সেটির মালিক হয়। এরপর দ্বিতীয় খেলোয়াড়ের লাটিমকে প্রথম অবস্থানের খেলোয়াড় আঘাত করে বাইরে নিতে পারলে সেটির মালিক সে হয়। এভাবে চলতে থাকে খেলা। তবে এ খেলায় লাটিমের আঘাতে অন্যের লাটিম ভেঙেও যায় অনেক সময়। আর সেটা করতে পারলে খেলোয়াড়রা অনেক বাহ্বা পায়।

এজন্য লাটিমের আল সোঁচালো করতে পছন্দ করে খেলোয়াড়রা। এছাড়াও কে কতক্ষণ সময় ধরে লাটিম ঘোরাতে পারে সে প্রতিযোগিতাও হয় শিশুকিশোরদের মধ্যে। গ্রামের অনেক শিশু-কিশোরই মাটিতে ঘুরানো লাটিম অদ্ভুত কৌশলে হাতের তালুতে তুলে নিলেও তা ঘুরতে থাকে। হাতের তালুতে লাটিম ঘোরানোর প্রতিযোগিতাই কখনও কখনও মেতে ওঠে গ্রামের ছেলেরা।

 

বাংলাদেশ২৪অনলাইন/শাওন মুকুল

 





মন্তব্য