ঢাকা - এপ্রিল ২৩, ২০১৮ : ৯ বৈশাখ, ১৪২৫

শিশুরা যুক্ত হচ্ছে রাজনীতিতে!

নিউজ ডেস্ক
অক্টোবর ২০, ২০১৬ ১৬:১১
মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের পাঠ্যপুস্তকে শিগগিরই রাজনীতির বিষয় অন্তর্ভুক্ত হতে যাচ্ছে। এরই মধ্যে কোন শ্রেণীতে কি বিষয় অন্তর্ভুক্ত হবে তা চূড়ান্ত করেছে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) এ সংক্রান্ত উপ-কমিটি। যে কোনো সময় ইসির পক্ষ থেকে সুপারিশ আকারে এ বিষয়টি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে উপস্থাপন করা হবে। সুপারিশমালায় ‘বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়’ বিষয়ে পঞ্চম শ্রেণীর বইয়ে ‘আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য’ এবং অষ্টম শ্রেণীতে ‘বাংলাদেশের রাষ্ট্র ও সরকারব্যবস্থা’ অধ্যায়ে কিছু তথ্য পরিবর্তন করার প্রস্তাব এসেছে। ষষ্ঠ শ্রেণীতে ভোটাধিকার ও নির্বাচন এবং সপ্তম শ্রেণীতে ‘বাংলাদেশের নির্বাচন ব্যবস্থা’ নামে নতুন অধ্যায় যোগ করার বিষয়ে ভাবা হচ্ছে।

ইসি সূত্রে জানা গেছে, শিশুদের রাজনীতির শিক্ষায় শিক্ষিত করার পরিকল্পনা বাস্তবায়নে ৮ জুন ইসির নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখার উপ-সচিব ফরহাদ আহাম্মদ খানকে আহ্বায়ক, সিনিয়র সহকারী সচিব মো. ফরহাদ হোসেনকে সদস্য সচিব করে চার সদস্যের একটি কমিটি করা হয়। কমিটির কর্মপরিধির বিষয়ে বলা হয়েছে- প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক, শিক্ষকদের বুনিয়াদী কোর্স এবং শিক্ষক প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের কারিকুলামে নির্বাচনী তথ্য সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় অন্তর্ভুক্তির সুপারিশসহ তিন ধরনের দায়িত্ব পালন করবে এই কমিটি। বিশেষ করে ছাত্রছাত্রীদের পাঠ্যবইয়ে ‘স্তর অনুসারে’ নির্বাচন সংক্রান্ত তথ্য অন্তর্ভুক্ত করা, আগে থেকেই এ বিষয় থাকলে তা হালনাগাদ করা এবং ইসির অনুমোদন নিয়ে সেসব সুপারিশ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে কমিটিকে। এরই মধ্যে কমিটি তাদের কাজ শেষ করে সুপারিশমালা চূড়ান্ত করেছে।

সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা বলেন, ষষ্ঠ শ্রেণীর নতুন অধ্যায়ে ভোটাধিকার, নির্বাচন, নির্বাচন কমিশন গঠন ও কাজ নিয়ে নতুন বিষয় যুক্ত করা এবং সপ্তম শ্রেণীতে নির্বাচনের গুরুত্ব ও বিভিন্ন ধরনের নির্বাচন পদ্ধতি সম্পর্কে তথ্য যোগ করার প্রস্তাব রয়েছে তাদের। এ ছাড়া নবম ও দশম শ্রেণীর ‘বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়’ বইয়ের ‘বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও নির্বাচন’ এবং নবম-দশম শ্রেণীর ‘পৌরনীতি ও নাগরিকতা’ বইয়ের ‘রাজনৈতিক দল ও নির্বাচন’ অধ্যায়ের কিছু তথ্য সংযোজন-বিয়োজনের প্রস্তাব করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের অনুমোদন পেলে তা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিবেচনার জন্য পাঠানো হবে।

বাংলাদেশ২৪অনলাইন/এসএম


মন্তব্য