ঢাকা - এপ্রিল ২১, ২০১৮ : ৮ বৈশাখ, ১৪২৫

ক্ষমতা ছাড়ার ঘোষণা দিলো ত্রিপোলি সরকারে

নিউজ ডেস্ক
এপ্রিল ০৬, ২০১৬ ২২:২৫
লিবিয়ার একনায়ক মুয়াম্মার গাদ্দাফির পতনের পর দেশটিতে বিবাদমান দুটি গোষ্ঠী নিজেদের সরকার ঘোষণা করে প্রশাসনিক কার্যক্রম চালাচ্ছিল। তাদের মধ্যে রাজধানী ত্রিপোলি-ভিক্তিক স্বঘোষিত সরকার ক্ষমতা ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছে।বিবিসি বলছে, জাতিসংঘ সমর্থিত প্রেসিডেন্সি কাউন্সিলের কাছে ত্রিপোলি-ভিত্তিক সরকার ক্ষমতা হস্তান্তর করার ঘোষণা দিয়েছে।

দেশটির বিচার মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এই ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

রক্তপাত এড়াতে এবং দেশের বৃহত্তর স্বার্থে মন্ত্রিসভা বিলুপ্ত করছে বলে বিবৃতিতে জানিয়েছে স্বঘোষিত ন্যাশনাল সালভেশন সরকার।

২০১৪ সালে ত্রিপোলিতে আধাসামরিক বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষের পর দেশটির নির্বাচিত সরকার রাজধানী ছেড়ে পূর্বাঞ্চলের দিকে পালিয়ে যায় ।

আর এরপরই ইসলামপন্থি ন্যাশনাল সালভেশন সরকার ত্রিপোলির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সরকার পরিচালনা করছিল। তবে এই সরকার কখনোই আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায় করতে পারেনি।

বিবিসি বলছে, স্বঘোষিত ত্রিপোলি-ভিত্তিক সরকারের বিলুপ্তিতে জাতিসংঘ সমর্থিত একটি ঐক্যমত্যের সরকারের জন্য বিভক্ত হয়ে যাওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর উপর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্র সৃষ্টি হবে।

গেল সপ্তায় জাতিসংঘ সমর্থিত সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পাওয়া ফায়েজ আল সিরাজ ত্রিপোলি পৌঁছেন। সেখানে একটি নৌঘাটিতে অবস্থান করছেন তিনি।

সিরাজের নেতৃত্বে নয় সদস্যের একটি কাউন্সিল জাতিসংঘ সমর্থিত এই সরকার পরিচালনা করবে।

দেশটিতে এখনো বিভিন্ন অঞ্চল থেকে একাধিক সরকার তাদের কার্যক্রম চালাচ্ছে।

আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃতি পাওয়া সংসদ সদস্যদের মাধ্যমে পরিচালিত একটি সরকারও লিবিয়ার পূর্বাঞ্চলে অবস্থান করছে।

এমন কী ত্রিপোলিতেও আরও একটি স্বঘোষিত কর্তৃপক্ষ রয়েছে যারা জাতিসংঘ সমর্থিত সরকারকে এখনো মেনে নেয়নি।

সশস্ত্র আঞ্চলিক বিভিন্ন গোষ্ঠীগুলোর মধ্যেও জাতিসংঘ সমর্থিত নয়া সরকারকে সমর্থন দেবে কিনা এ নিয়ে মতবিরোধ রয়েছে।


মন্তব্য