ঢাকা - এপ্রিল ২৩, ২০১৮ : ৯ বৈশাখ, ১৪২৫

দারিদ্র্যের কষাঘাত থেকে যারা এখন বলিউড তারকা

নিউজ ডেস্ক
মার্চ ৩০, ২০১৬ ০০:০৮

amitabh-rajinikanthবলিউডের আজকের প্রতিষ্ঠিত অনেক তারকার জীবনে সাফল্য এসেছে বহু পরিশ্রমে ও আর উত্থানপতনের পর। বিত্তহীন, দরিদ্র অবস্থা থেকে তাঁরা উঠে এসেছেন বলিউডের পাদপ্রদীপের আলোয়। জেনে নিন এমন কিছু তারকার কথা।


১. অমিতাভ বচ্চন: বলিউডের একচ্ছত্র অধিপতি, প্রভাবশালী তারকা ধরা হয় বিগ বি অমিতাভ বচ্চনকে। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত যে প্রতাপের সঙ্গে কাজ করছেন তিনি, খুব কম তারকার জীবনেই এমন সাফল্য রয়েছে। তবে বচ্চন সাহেবের জীবনের শুরুর দিকটা কিন্তু মোটেও সহজ ছিল না। এলাহাবাদ থেকে যখন মুম্বাই এসেছিলেন, তখন তিনি ছিলেন সহায়-সম্বলহীন দরিদ্র এক যুবক। কোনো থাকার জায়গা ছিল না বলে বহু রাত কাটিয়েছেন মেরিন ড্রাইভের সমুদ্রসৈকতে।


২। রজনীকান্ত: এখন পর্যন্ত দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পাওয়া অভিনেতা হলেন রজনীকান্ত। বয়স যতই হোক, এখনো রজনীর ঝলকে মাত পুরো ভারত। কিন্তু কোটি কোটি রুপির রজনীকান্ত একসময় কাজ করতেন বাসের কন্ডাক্টর হিসেবে। এমনকি বাড়তি কিছু আয়ের জন্য তিনি কুলির কাজও করতেন।


৩. অক্ষয় কুমার: বলিউডের সফলতম অভিনেতাদের একজন অক্ষয় কুমার। একসময় ব্যাংককে বেয়ারা হিসেবে কাজ করেছেন তিনি। এ সময় বাসনকোসন পরিষ্কারের কাজও করেছেন তিনি। শেফ হয়ে যাওয়ার পরও তাঁর আয় ছিল মোটে হাজার দেড়েক রুপি। রান্নাঘরে ঘুমিয়ে কেটেছে তাঁর রাতের পর রাত। একসময় ঢাকার একটি হোটেলেও কাজ করেছেন তিনি।


৪. বোমান ইরানি: ছোটবেলায় মাকে পারিবারিক বেকারির ব্যবসায় সাহায্য করতেন বোমান। এই বেকারির আয় থেকেই পেট চালাতে হতো তাঁর পরিবারকে। বড় হওয়ার পর বোমান একজন ওয়েটার এবং রুম সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করতেন মুম্বাইয়ের তাজমহল প্যালেস হোটেলে।


৫. নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী: বহু সংগ্রাম করে আজকের অবস্থানে এসেছেন এই তারকা। একসময় বলিউডের বিভিন্ন ছবিতে পাসিং শটে সামান্য কয়েক সেকেন্ডের উপস্থিতি থাকত তাঁর। খুবই সামান্য সব চরিত্রে বা উপস্থিতির থেকে এই পর্যায়ে উঠে এসেছেন আজকের জায়গায়।


৬. রাকেশ ওমপ্রকাশ মেহরা: বলিউডের এই মেধাবী সেলিব্রেটি পরিচালক বহুদিন কাটিয়েছেন দরিদ্র অবস্থায়। একসময় বিভিন্ন শুটিংয়ের সেটে চা সার্ভ করাই ছিল তাঁর কাজ। এ ছাড়া তিনি ভ্যাকুয়াম ক্লিনার বিক্রি করতেন জীবিকা নির্বাহের জন্য।


বাংলাদেশ২৪অনলাইন/টিএম



মন্তব্য