ঢাকা - ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৮ : ৫ ফাল্গুন, ১৪২৪

বিদ্রোহী নয়, সাধারণ মানুষ হত্যা করছে সৌদি আরব

নিউজ ডেস্ক
জুন ১৩, ২০১৫ ২২:৪২
ইয়েমেনে অব্যাহত সৌদি বিমান হামলায় এ পর্যন্ত নারী ও শিশুসহ ২,৬০০ নিরীহ বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছে।

আজ ১৩ জুন রাজধানী সানায় ইউনেস্কোর বিশ্ব-ঐতিহ্যের তালিকাভুক্ত এলাকায় বোমা বর্ষণে অন্তত ৫ জন নিহত ও ইউনেস্কোর তালিকাভুক্ত ৩টি বাড়ী ধ্বংস হয়েছে।

ইউনেস্কো বিশ্বের ঐতিহ্যবাহী স্থানে হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেছে, যুদ্ধরত সব পক্ষেরই উচিত এ ধরনের ঐতিহ্যবাহী স্থানের প্রতি সম্মান দেখানো।

১২ জুন শুক্রবার সাদা প্রদেশের বাকেম জেলার একটি বাজারে সৌদি বিমান হালায় ১২ জন নিহত হয়, আহত হয় ১৫ জন। জাতিসংঘের তথ্যমতে ইয়েমেনে সৌদি বিমান হামলায় এ পর্যন্ত ২ হাজারের মতো লোক নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে ৭ হাজারেরও বেশি ।

ইউনেস্কো বলেছে, ইয়েমেনের পক্ষ থেকে কোনো ধরণের উস্কানি ছাড়াই সৌদি আরব গত ২৬ মার্চ থেকে দেশটিতে বর্বরোচিত বিমান হামলা শুরু করেছে। এতে প্রতিদিনই বহু নিরাপরাধ মানুষের প্রাণহানি ঘটছে।

উল্লেখ্য যে, চলতি বছরের শুরুতে ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট মনসুর হাদীকে ক্ষমতাচ্যুত করে হুতিরা। পরে হাদী সৌদি আরব পালিয়ে যান।

ইরান সমর্থিত চরমপন্থী সশস্ত্র শিয়া গোষ্ঠী হুথি বাহিনীকে দমনে  গত ২৬ মার্চ থেকে ইয়েমেনে বিমান ও গোলা হামলা হামলা চালিয়ে আসছে সৌদি আরব ও গল্ফভুক্ত দেশগুলো।ইসরায়েলের গণম্যাধমে বলা হয়েছে, সৌদি জোটে যোগ দিয়ে ইসরায়েলও ইয়েমেনে হামলা চালাচ্ছে।



আগামীকাল ১৪ জুন জেনেভায় ইয়েমেনে স্থায়ী অস্ত্রবিরতি নিয়ে আলোচনার এক উদ্যোগ নিয়েছে জাতিসংঘ।ইয়েমেনের নির্বাসিত সরকার জাতিসংঘের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে।তবে হুথি বাহিনী অস্ত্রবিরতি চাইলেও বৈঠকে বসতে রাজি হয়নি।



বাংলাদেশ২৪অনলাইন/এআর/১৩জুন ২০১৫


মন্তব্য