ঢাকা - ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৮ : ৫ ফাল্গুন, ১৪২৪

রাশিয়া বিশ্বকাপের এই স্টেডিয়াম যেন রাজপ্রাসাদ!

নিউজ ডেস্ক
নভেম্বর ১২, ২০১৭ ১৭:০৭
রাশিয়ার লুজনিকি স্টেডিয়াম। বাইরে থেকে দেখলে এ যেন এক সুবিশাল রাজপ্রাসাদ। আর স্টেডিয়ামের ভিতরে চোখ ধাঁধানো গ্যালারি এবং সবুজ ঘাস। এই মাঠেই হবে ২০১৮ বিশ্বকাপের ফাইনাল।

তাই নতুন করে সাজিয়ে তোলা হয়েছে। শুধু সাজিয়ে বললে কম বলা হয়। ঝলমলে আলোর রোশনাইয়ে যেন মুড়ে ফেলা হয়েছে স্টেডিয়ামের বাইরের অংশ। দর্শক আসন প্রায় ৭৮ হাজার।



মস্কোর এই স্টেডিয়ামেই ১১ নভেম্বর রাশিয়ার বিরুদ্ধে ফেন্ডলি ম্যাচে টিম আর্জেন্টিনা ১-০ গোলে রাশিয়াকে হারিয়েছে। এর আগে ফুটবলের যুবরাজ লিওনেল মেসির দেশের আগমন উপলক্ষে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছিল গোটা স্টেডিয়াম। এর আগে সেখানে হিমাঙ্কের নীচে মাইনাস এক ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় প্রস্তুতি সারেন মেসিরা।



রাশিয়ার লুজনিকি স্টেডিয়াম নির্মাণ করা হয় সোভিয়েত আমলে ১৯৫৫ থেকে ১৯৫৬ সালে। প্রথমে এর নাম ছিল সেন্ট্রাল লেনিন স্টেডিয়াম। স্টেডিয়ামটির অবস্থান রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে, মস্কোভা নদীর তীরে।



নব্বইয়ের দশক পর্যন্ত স্টেডিয়ামটি ছাদবিহীন ছিল। সে সময় এর ধারণ ক্ষমতা ছিল ১ লাখ। তবে পরবর্তীতে ১৯৯৬ সালে স্টেডিয়ামটির ব্যাপক সংস্কার করা হয়, এতে ছাদ সংযোজন করা হয় এবং এর আসন পুনর্বিন্যাস করে ১ লাখ থেকে হ্রাস করে ৮১,০০০ এ নামিয়ে আনা হয়।



২০১৮ সালের বিশ্বকাপের স্টেডিয়ামগুলোর মধ্যে এর আকার সবচেয়ে বড়।বিশ্বকাপ উপলক্ষে মাঠটি আবারও সংস্কার করা হয়। এ বছরের জুন মাসে সংস্কার কাজ সম্পন্ন হয়। এই সুবিশাল রাজপ্রাসাদ সদৃশ মাঠেই বিশ্বকাপের উদ্বোধনী এবং ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ২৪অনলাইন/টিএম


মন্তব্য