ঢাকা - মে ২২, ২০১৮ : ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫

‘এই বুড়ো হাড়ে মার সহ্য হয় না, বলে দেবেন ওরা যেন আর কিছু না বলে’

নিউজ ডেস্ক
আগস্ট ১৬, ২০১৭ ১৪:৫২
০ বার পঠিত
‘এই বুড়ো হাড়ে আর মার সহ্য হয় না। আপনি বলে দেবেন ওরা যেন আমাকে আর কিছু না বলে।’ ঝিনাইদহ শৈলকুপা উপজেলার বিপ্র-বগদিয়া গ্রামে ৫ ছেলের মধ্যে ৪জনের হাতেই মার খাওয়া শতবর্ষী হতভাগা পিতা জমির উদ্দিন শেখ এমন করেই আকুতি জানিয়েছেন শৈলকুপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে।

জানা যায়, তার ৫২ বিঘা জমি থাকার পরও ৫ ছেলের মধ্যে ৪ ছেলের হাতেই মার খেতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। বড় ছেলে সাহেব আলী তাকে দুই বার মেরেছে, সেজ ছেলে আইয়ুব আলীও তাকে দুই বার মেরেছে, তৃতীয় পুত্র আলতাফ তাকে মেরেছে ৩ বার আর সর্ব কনিষ্ঠ পুত্র মশিয়ার তাকে মেরেছে দুই বার। বেশ কিছুদিন ছিলেন মেজ ছেলের সাথে। কিন্তু ছেলের বৌ অভিযোগ তোলে কেউ যখন তাকে খেতে দেয় না তখন আমরাও তাকে খেতে দেব না। এই বলে বাড়ি থেকে বের করে দেয়।

জামিরুদ্দিন শেখ জানান, ‘অসুস্থতার সুযোগে ৫২ বিঘা সম্পত্তি জোর করে লিখে নিয়েছেন ছেলেরা। আবার শারীরিক নির্যাতনও করছে প্রতিনিয়ত। তাদের এ অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে চলে গেলেন বৃদ্ধাশ্রমে কিন্তু সেখানেও তার ঠাঁই হয়নি বেশিদিন। সেখানে ছিলেন প্রায় দুই মাস। তার বড় ছেলের মেয়ে ও তার জামাই, সেখান থেকে টেনে-হিচড়ে বের করে নিয়ে এসে আবার বড় ছেলের বাড়িতে রেখে আসে তারা। এখন কেউ তার সাথে কোন কথা বলে না। আর বিভিন্ন অছিলায় আমার উপর চলে কঠিন শারীরিক নির্যাতন।’



মন্তব্য