ঢাকা - ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০১৮ : ১২ ফাল্গুন, ১৪২৪

বিলাসিতাকে পেছনে ফেলে বিশ্বে দৃষ্টান্ত সৌদি রাজকুমারী আমিরাহ

নিউজ ডেস্ক
জানুয়ারি ১১, ২০১৭ ২৩:০৪
সৌদি রাজপরিবারের অনেক সদস্যের বিলাসিতার গল্প কারো অজানা নয়। রাজপরিবারের মধ্যে যারা সবচেয়ে ধনী তাদের অধিকারে রয়েছে ফ্রেঞ্চ অট্টালিকা ও সৌদি রাজপ্রাসাদ আর সুইস ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে লুকিয়ে রাখা কোটি কোটি টাকা। সবচেয়ে জাঁকজমক পোশাকগুলো এরাই পরেন। সমুদ্র বিহারের জন্য পৃথিবীর সবেচেয়ে বড় বড় ইয়াচগুলোও রয়েছে তাদের। আর এর সবকিছুই ঘটছে সৌদির সাধারণ মানুষের দৃষ্টির বাইরে।

তবে তার মধ্যে ব্যতিক্রম ও অনন্য রাজকুমারী আমিরাহ আল তাউইল। সৌন্দর্য, স্বচ্ছ মানসিকতা ও সুন্দর মনের মেলবন্ধনে অনন্য গুণের অধিকারী তিনি। ৩৩ বছর বয়সী অসাধারণ সুন্দরী এই রাজকুমারী নিজের নামের পরিচয়ে সীমাবদ্ধ থাকেননি।

মেয়েদের জন্য শরিয়তের নির্ধারণ করে দেওয়া নিয়ামাবলী, পোশাক সব কিছুর বিরুদ্ধে সব সময় প্রতিবাদী তিনি। নিজের স্টাইল স্টেটমেন্ট যেমন তৈরি করেছেন তেমনই সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দিয়েছেন নিজের সেবামূলক কাজ।

আমিরাহ নিজেকে চার দেওয়ালের ভিতর, পর্দার আড়ালে লুকিয়ে রাখা তো দূরের কথা, সৌদি আরবের গণ্ডিতেও আটকে রাখেননি। সারা বিশ্বের ৭০টি দেশের বিভিন্ন সেবামূলক ও গঠনমূলক কাজের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন তিনি। দারিদ্র্য ও বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোকে নিজের কর্তব্য মনে করেন আমিরাহ। পশ্চিম আফ্রিকায় শরনার্থী শিবির, পাকিস্তানে বন্যাত্রাণ পৌঁছানো, কেমব্রিজ ইউনিভার্সিটিতে সেন্টার অব ইসলামিক স্টাডিজ খোলা, সোমালিয়ায় মিশন তার কাজের কিছু উদাহরণ।



মন্তব্য