ছবিটি কেরানীগঞ্জ থেকে তুলেছেন আমাদের নিজস্ব প্রতিনিধি[/caption]

শীতের বাহারি শাকসবজি বাজারে আসছে প্রচুর পরিমাণে। মৌসুমের অনেকটা সময় অতিবাহিত হওয়ায় বাজারে আসা বিভিন্ন প্রকার শাকসবজির দামও অনেক কম। এতে সাধারণ মানুষ খুশি হলেও খুশি নন কৃষকরা। মৌসুমের শুরুতে যে উচ্চমূল্য পেয়েছেন কৃষকরা বর্তমানে সেটি পাচ্ছেন না।

তার মধ্যে বাংলাদেশের দেশের প্রধান সবজি আলু অন্যতম। সরেজমিনে দেখা গেল, কেরানীগঞ্জের অনেক কৃষক জমির পর জমিতে আলু চাষ করেছেন। এই আলু বড় হতে শুরু করে বাজারে আসা পর্যন্ত অনেক সময় অতিবাহিত হয়ে যাবে।

বর্তমানে আলু ২০ থেকে ২৫ টাকা। আর সামনে এটি ১০ টাকা বা আর কম দাম হবে। ফলে কেরানীগঞ্জের কৃষকরা তাদের জমিতে চাষকৃত আলুর দাম যে বেশি পাবেন না বা লোকসান দিবেন সেটি বলার অপেক্ষা রাখে না।

অথচ এই আলু শীতের মৌসুমের শুরুতে ছিল ১০০ থেকে ১৫০ টাকা। সেই সময় তারা জমিতে চাষ করে আলু বিক্রি করতে পারলে অনেক দাম পেট ফলে তারা বেশ লাভবান হতেন। অথচ তাদের" />
ঢাকা - ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৮ : ৫ ফাল্গুন, ১৪২৪
ছবিটি কেরানীগঞ্জ থেকে তুলেছেন আমাদের নিজস্ব প্রতিনিধি[/caption]

শীতের বাহারি শাকসবজি বাজারে আসছে প্রচুর পরিমাণে। মৌসুমের অনেকটা সময় অতিবাহিত হওয়ায় বাজারে আসা বিভিন্ন প্রকার শাকসবজির দামও অনেক কম। এতে সাধারণ মানুষ খুশি হলেও খুশি নন কৃষকরা। মৌসুমের শুরুতে যে উচ্চমূল্য পেয়েছেন কৃষকরা বর্তমানে সেটি পাচ্ছেন না।

তার মধ্যে বাংলাদেশের দেশের প্রধান সবজি আলু অন্যতম। সরেজমিনে দেখা গেল, কেরানীগঞ্জের অনেক কৃষক জমির পর জমিতে আলু চাষ করেছেন। এই আলু বড় হতে শুরু করে বাজারে আসা পর্যন্ত অনেক সময় অতিবাহিত হয়ে যাবে।

বর্তমানে আলু ২০ থেকে ২৫ টাকা। আর সামনে এটি ১০ টাকা বা আর কম দাম হবে। ফলে কেরানীগঞ্জের কৃষকরা তাদের জমিতে চাষকৃত আলুর দাম যে বেশি পাবেন না বা লোকসান দিবেন সেটি বলার অপেক্ষা রাখে না।

অথচ এই আলু শীতের মৌসুমের শুরুতে ছিল ১০০ থেকে ১৫০ টাকা। সেই সময় তারা জমিতে চাষ করে আলু বিক্রি করতে পারলে অনেক দাম পেট ফলে তারা বেশ লাভবান হতেন। অথচ তাদের" class="img-thumbnail">

কৌশলের অভাবে লোকসানের মুখে কেরানীগঞ্জের আলু চাষিরা

নিউজ ডেস্ক
জানুয়ারি ১০, ২০১৭ ১৯:৪৮
[caption id="attachment_103014" align="alignright" width="505"] ছবিটি কেরানীগঞ্জ থেকে তুলেছেন আমাদের নিজস্ব প্রতিনিধি[/caption]

শীতের বাহারি শাকসবজি বাজারে আসছে প্রচুর পরিমাণে। মৌসুমের অনেকটা সময় অতিবাহিত হওয়ায় বাজারে আসা বিভিন্ন প্রকার শাকসবজির দামও অনেক কম। এতে সাধারণ মানুষ খুশি হলেও খুশি নন কৃষকরা। মৌসুমের শুরুতে যে উচ্চমূল্য পেয়েছেন কৃষকরা বর্তমানে সেটি পাচ্ছেন না।

তার মধ্যে বাংলাদেশের দেশের প্রধান সবজি আলু অন্যতম। সরেজমিনে দেখা গেল, কেরানীগঞ্জের অনেক কৃষক জমির পর জমিতে আলু চাষ করেছেন। এই আলু বড় হতে শুরু করে বাজারে আসা পর্যন্ত অনেক সময় অতিবাহিত হয়ে যাবে।

বর্তমানে আলু ২০ থেকে ২৫ টাকা। আর সামনে এটি ১০ টাকা বা আর কম দাম হবে। ফলে কেরানীগঞ্জের কৃষকরা তাদের জমিতে চাষকৃত আলুর দাম যে বেশি পাবেন না বা লোকসান দিবেন সেটি বলার অপেক্ষা রাখে না।

অথচ এই আলু শীতের মৌসুমের শুরুতে ছিল ১০০ থেকে ১৫০ টাকা। সেই সময় তারা জমিতে চাষ করে আলু বিক্রি করতে পারলে অনেক দাম পেট ফলে তারা বেশ লাভবান হতেন। অথচ তাদের একটু কৌশলের অভাবে এখন তারা লোকসানের শিকার হবেন। তাই কৃষি বিশেষজ্ঞরা বলেন, কৃষকরা সবজি চাষে একটু কৌশলী হলে তারা লাভবান হতে পারেন। এখন তাদের ক্ষতির মুখে পড়তে হবে।

বাংলাদেশ২৪অনলাইন ডেস্ক


মন্তব্য