ঢাকা - মে ২২, ২০১৮ : ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫

সাধারণ মানুষের দৃষ্টির বাইরে সৌদি আরবের রাজপরিবারের বিলাসিতা

নিউজ ডেস্ক
জানুয়ারি ০৭, ২০১৭ ১৬:২৮
০ বার পঠিত
সৌদি আরবের বাদশা সালমানের ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য গত গ্রীষ্মেই একটি প্যাঁচানো নতুন রাজপ্রাসাদ আটলান্টিক মহাসাগরের উপকূলঘেঁষে নির্মাণ করা হয়েছে। রাজপরিবারের ছুটি কাটানোর কম্পাউন্ডে হেলিকপ্টার ওঠানামার জন্য উজ্জ্বল নীল রঙের অবতরণ প্যাড নির্মাণ করা হচ্ছে। এ কম্পাউন্ডেই সার্কাস প্যান্ডেলের আকারের বিশাল এক তাঁবু খাটনো হচ্ছে। যাতে বাদশা সালমান এখানে তার বিশাল লোকলস্কর নিয়ে ভোজনোৎসব ও আনন্দ-উল্লাস করতে পারেন।

রাজপরিবারের এই যে অগাধ ধনসম্পদ, এর উৎস মূলত অফুরন্ত তেলের খনি। এখন থেকে ৭৫ বছর আগে বাদশা সালমানের বাবা বাদশা আবদুল্লাহ ইবনে সৌদের রাজত্বকালে এ তেলের খনি আবিষ্কার হয়। এই তেল বিক্রির বিলিয়ন বিলিয়ন ডলারই বার্ষিক ভাতা, সরকারি খাত আর রাজপরিবারের সদস্যদের জন্য বিভিন্ন প্রণোদনার জোগান দিয়ে যাচ্ছে। রাজপরিবারের মধ্যে যারা সবচেয়ে ধনী তাদের অধিকারে রয়েছে ফ্রেঞ্চ অট্টালিকা ও সৌদি রাজপ্রাসাদ আর সুইস ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে লুকিয়ে রাখা কোটি কোটি টাকা। সবচেয়ে জাঁকজমক পোশাকগুলো এরাই পরে। সমুদ্র বিহারের জন্য পৃথিবীর সবেচেয়ে বড় বড় ইয়াচগুলোও রয়েছে তাদের। আর এর সবকিছুই ঘটছে সৌদির সাধারণ মানুষের দৃষ্টির বাইরে।

বাংলাদেশ২৪অনলাইন/ডেস্ক


মন্তব্য